মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

হজ্জ ২০১৯ সম্পর্কিত বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহীর বার্তা


প্রকাশন তারিখ : 2019-09-15

 

১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

 

প্রিয় সহকর্মীবৃন্দ,

 

আসসালামু আলাইকুম।

 

চলতি মৌসুমের প্রি এবং পোষ্ট হজ্জ ফ্লাইট অত্যন্ত সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এ সফলতার পেছনে রয়েছে আপনাদের কঠোর পরিশ্রম, দায়িত্বনিষ্ঠা ও একাগ্রতা। আপনারা শুধু আপনাদের উপর ন্যস্ত দায়িত্বই পালন করেননি, এ দেশের ধর্মপ্রাণ মুসল্লীদের গুরত্বপূর্ণ ইবাদত হজ্জ পালনের যাত্রাকে নিরাপদ ও নিশ্চিত রাখতে নিরলস পরিশ্রম করেছেন।

 

বিমান নতুন এক মাইলফলক অর্জন করেছে। চলতি হজ্জ মৌসুমে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স তার ইতিহাসে রেকর্ড সংখ্যক ৬৬,২৮৬ জন হজ্জ যাত্রীকে নিরাপদে পবিত্র ভূমি সৌদি আরবে পৌঁছে দিয়েছে। হজ্জের গুরুত্ব ও ধর্মপ্রাণ মানুষের ধমীয় অনুভূতিকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে সবার হজ্জ যাত্রা নিশ্চিত করতে বিমান তার পূর্ব নির্ধারিত লক্ষ মাত্রা ৬৩,৫৯৯ জন এর চেয়ে অতিরিক্ত ১৪১৭ জন হজ্জ যাত্রী পরিবহন করেছে। এজন্য আমি আনন্দিত, এই অর্জনের কৃতিত্ব বিমানের সকল স্তরের কর্মীর।

 

এ বছর বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ০৪ জুলাই, ২০১৯ থেকে ০৫ আগষ্ট, ২০১৯ পর্যন্ত ‘প্রি-হজ্জ’-এ মোট ১৪৯টি ডেডিকেটেড ফ্লাইট পরিচালনা করেছে এবং ১৭ আগস্ট থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১৪০টি পোষ্ট হজ্জ ফ্লাইট পরিচালনা করেছে। এছাড়া প্রি-হজ্জে ৩২টি এবং পোষ্ট হজ্জে ২৮টি শিডিউল ফ্লাইট পরিচালনা করা হয়েছ। এর মধ্যে চট্টগ্রাম থেকে ১২টি এবং সিলেট থেকে ০২টি সরাসরি হজ্জ ফ্লাইট পরিচালনা করা হয়। গতবারের ন্যয় এবারও বিমান চট্টগ্রাম থেকে সরাসরি মদিনায় ০৬টি এবং সিলেট থেকে সরাসরি মদিনায় ০১টি ফ্লাইট পরিচালনা করা হয়।

 

ফিরতি হজ্জ ফ্লাইট শুরু হওযার কিছুদিন পর হাজী পরিবহনের জন্য ডেডিকেটেড একটি উড়োজাহাজের যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে বেশ কিছু সংখ্যক সম্মানিত হাজীদের সময়মত ঢাকায় ফেরৎ আনার প্রক্রিয়া সাময়িক বিঘিœত হলেও বিমান তার নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় এবং নিজ খরচে সম্মানিত হাজীদেরকে প্রয়োজনীয় সকল সহযোগিতা প্রদান করত: অতি দ্রুত ঢাকায় আনার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। সময়ানুযায়ী এ ধরণের সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণ করে আবারও বিমান কর্মীরা প্রমাণ করেছেন যে তারা যে কোন সংকট মোকাবিলা করতে সক্ষম।

 

বিমান ব্যবস্থাপনার পক্ষ থেকে এজন্য আমি আপনাদের সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি। কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি আপনাদের নিরলস শ্রম ও দৃঢ় প্রত্যয়ের জন্য। আমি বিশ্বাস করি, সাফল্যের এই ধারা অব্যাহত থাকবে, কোম্পানীর প্রতি আপনাদের এই আন্তরিকতা অচিরেই বিমানকে আরো আধুনিক ও একটি মর্যাদাশীল আন্তর্জাতিক এয়ারলাইন্সে পরিণত করবে। ঐকান্তিক প্রচেষ্টা এবং নিবেদিত প্রাণ সেবায় বিমান যোগ্য আসনে আসীন হবে। দেশের লাল সবুজ পতাকাবাহী আমাদের এই প্রাণপ্রিয় প্রতিষ্ঠানের সম্মান ও সর্যাদা বৃদ্ধিতে মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন আমাদের সহায় হোন।

 

 

আন্তরিকতাসহ,

 

ক্যাপ্টেন ফারহাত হাসান জামিল

ব্যবস্থাপনা পরিচালন ও সিইও

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স


Share with :

Facebook Facebook